‘বিআইএফএফএল জ্বালানি খাত এবং পিপিপি উদ্যোগকে এগিয়ে নিতে ভূমিকা রাখছে’  

    স্টাফ করেসপনডেন্ট, এনার্জিনিউজবিডি ডটকম
    প্রকাশিত: অক্টোবর ০৪, ২০১৮ বৃহস্পতিবার ০৯:১৩ পিএম BdST     ক্যাটাগরি: অন্যান্য

জ্বালানি খাতের উন্নয়নে এবং পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশীপ উদ্যোগকে এগিয়ে নিতে বাংলাদেশ ইনফ্রাস্ট্রাকচার ফাইন্যান্স ফান্ড লিমিটেড গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

বৃহস্পতিবার ঢাকায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে রাষ্ট্রীয় আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিআইএফএফএল আয়োজিত তিন দিনব্যাপী গ্রিন পিপিপি কনভেনশন অ্যান্ড এক্সপো-২০১৮ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী এ কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী মুহিত বলেন, “দেশে এখনো এক কোটি অতি দরিদ্র মানুষ আছে। ধীরে ধীরে দরিদ্র মানুষের সংখ্যা হ্রাস করেছি। তবে আমি মনে করি, বৈষম্য এখনো কাঙ্ক্ষিত মাত্রায় কমে আসেনি। ভবিষ্যতে তা কমিয়ে আনার চেষ্টা করবো।”

অর্থমন্ত্রী বলেন, ২০২৪ সালে বাংলাদেশের বিদ্যুৎ উৎপাদন সক্ষমতা ৩০ হাজার মেগাওয়াট হবে। বর্তমানে বিদ্যুৎ উৎপাদন সক্ষমতা ২০ হাজারেরও বেশি।

তিনি আরো বলেন, “২০০৯ সালে বর্তমান সরকার ক্ষমতাগ্রহণের পর প্রথম তিন বছর বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়াতে ক্র্যাশ প্রোগ্রাম নিয়েছিল। আমার ধারণা, সেই ক্র্যাশ প্রোগ্রামই ১০ বছর ধরে সরকারের প্রবৃদ্ধির অর্জনের পথ করে দিয়েছে। বর্তমানে চাহিদার চেয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন বেশি হচ্ছে। এটি আমাদের জন্য অনেক স্বস্তির। একই সঙ্গে দেশের অর্থনীতির জন্যও খুবই স্বস্তির বিষয়।”

দেশের জ্বালানি ও অবকাঠামো উন্নয়নে বিআইএফএফএল যেসব প্রকল্প নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে তা সত্যি অনেক প্রশংসার দাবি রাখে বলে জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে  উপস্থিত ছিলেন  অর্থবিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব আব্দুর রউফ তালুকদার, বিদ্যুৎ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব রহমত উল্লাহ মো. দস্তগীর, অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এখলাছুর রহমান, বিআইএফএফএলের নির্বাহী পরিচালক এস এম ফরমানুল ইসলাম, জাপানের আন্তর্জাতিক সহায়তা সংস্থা জাইকার প্রধান প্রতিনিধি হিতোশি হিরাতা ও বিশ্বব্যাংকের সিনিয়র ফিন্যান্সিয়াল সেক্টর স্পেশালিস্ট এ কে এম আবদুল্লাহ।

এ প্রদর্শনীতে জ্বালানী দক্ষ ও জ্বালানী সাশ্রয়ী এবং পরিবেশবান্ধব শিল্প-প্রযুক্তি সরবরাহকারীগণ তাদের কাঙ্খিত গ্রাহকদের নব-উদ্ভাবিত প্রযুক্তি বিষয়ে তথ্য উপস্থাপন ও উদ্ভাবনী ব্যবসায়িক সমাধান প্রদর্শন করার সুযোগ পাবেন।

সেই সাথে দেশের জ্বালানী ও প্রযুক্তিখাত বিশেষজ্ঞগণ, উন্নয়ন অংশীদার, ব্যাংকার, নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি এবং প্রযুক্তি ব্যবহারকারীদের সমন্বয়ে তিন দিনব্যাপী তিনটি জাতীয় সেমিনারের মাধ্যমে পিপিপি, জ্বালানী দক্ষ ও জ্বালানী সাশ্রয়ী শিল্প-প্রযুক্তি এবং পরিবেশবান্ধব নির্মাণ সামগ্রী উৎপাদন প্রযুক্তি বিষয়ক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গত বছরের বিআইএফএফএলের মুনাফার ৬৪ কোটি টাকার চেক অর্থমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন এস এম ফরমানুল ইসলাম।

তৃতীয়বারের মতো এই আয়োজন ঢাকা চলবে ৪ থেকে ৬ অক্টোবর এবং চট্টগ্রামে ৫ থেকে ৭ অক্টোবর পর্যন্ত। সবার জন্য উম্মুক্ত এই প্রদর্শনী প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।

 

সম্পাদক: আমিনূর রহমান
@ সর্বস্বত্ব এনার্জিনিউজবিডি ডটকম ২০১৫-২০১৮