জ্বালানি তেলের বর্ধিত উত্তোলন কমাবে না ওপেক  

    নিউজ ডেস্ক, এনার্জিনিউজবিডি ডটকম
    প্রকাশিত: ডিসেম্বর ০৬, ২০১৫ রবিবার ০৩:৩৩ পিএম BdST     ক্যাটাগরি: পেট্রোলিয়াম

অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের বর্ধিত উত্তোলন আগামী বছরও অব্যাহত রাখতে চায় অর্গানাইজেশন অব পেট্রোলিয়াম এক্সপোর্টিং কান্ট্রিজভুক্ত (ওপেক) দেশগুলো

অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় গত শুক্রবার জোটভুক্ত দেশগুলোর সাত ঘণ্টাব্যাপী বৈঠকে উত্তোলন কমানোর বিষয়ে মতৈক্যে পৌঁছতে পারেনি ওপেক সদস্যরা।

এতে বর্তমানে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের উৎপাদন রেকর্ড পর্যায়ে থাকলেও আগামী বছরেও অব্যাহত থাকবে পণ্যটির অতিরিক্ত বৈশ্বিক সরবরাহের চাপ।

ফলে পণ্যটির মূল্য বর্তমানে ব্যারেলপ্রতি ৪০ ডলারের কাছাকাছি ওঠানামা করলেও সামনের দিনগুলোয় তা নেমে আসতে পারে ৩০ ডলারের নিচে।

ওপেকের শুক্রবারের সভায় মতানৈক্যের বিষয়টি জ্বালানি তেলের বাজারদরের চেয়েও বেশি আঘাত হেনেছে জোটবদ্ধ দেশগুলোর পারস্পরিক বোঝাপড়ায়।

বিশ্ববাজারে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের বাণিজ্য পর্যবেক্ষক সংস্থা ক্লিপার ডাটার পণ্যবাজার গবেষণা বিভাগের প্রধান ম্যাথিউ স্মিথের ভাষ্য অনুযায়ী, ওপেক এখন আর ঐক্যবদ্ধ নেই।

বর্তমানে অতিরিক্ত সরবরাহের চাপে বিপর্যস্ত বৈশ্বিক জ্বালানি তেলের বাজার। গত বছরের নভেম্বরে ওপেকের সভায় সৌদি আরবের নেতৃত্বে বাজার অংশীদারিত্ব দখল করতে গিয়ে উত্পাদন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় জোট।

বাজার দখলে জোটের এ যুদ্ধ ঘোষণার পরিপ্রেক্ষিতে উৎপাদন বাড়িয়ে তোলে রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মতো জোটবহির্ভূত বড় উত্তোলক দেশগুলো।

ফলে আন্তর্জাতিক বাজারে পণ্যটির দাম কমতে থাকে। ওই সময়ে জ্বালানি তেলের মূল্য প্রতি ব্যারেল ১০০ ডলারের উপরে থাকলেও অব্যাহত দরপতনে চলতি বছরের আগস্টে তা প্রথমবারের মতো নেমে আসে ৪০ ডলারের নিচে।

এছাড়া চীনের অর্থনৈতিক শ্লথতা, যুক্তরাষ্ট্রে সুদহার বাড়ানোর সম্ভাবনায় ডলারের বিনিময় মূল্য বৃদ্ধি— সব মিলিয়ে আরো জোরালো হয়ে উঠে পণ্যটির নিম্নমুখিতা।

এর মধ্যে বিশ্বব্যাপী ভূরাজনৈতিক সংকট ও যুক্তরাষ্ট্রে তেল উত্তোলনরত কূপের সংখ্যা কমে আসায় বেশ কয়েকবার পণ্যটির বাজার ঊর্ধ্বমুখী হলেও সরবরাহ চাপ অব্যাহত থাকার শঙ্কায় গত সপ্তাহে পণ্যটির দর আবার তা ব্যারেলপ্রতি ৪০ ডলারের নিচে নেমে আসে ।

সম্পাদক: আমিনূর রহমান
@ সর্বস্বত্ব এনার্জিনিউজবিডি ডটকম ২০১৫-২০১৯