কয়লার ব্যবহার একদিন বন্ধ রেখেই বিদ্যুৎ উৎপাদন করলো যুক্তরাজ্য  

    বিবিসি নিউজ
    প্রকাশিত: এপ্রিল ২২, ২০১৭ শনিবার ০৮:৩১ পিএম BdST     ক্যাটাগরি: অন্যান্য দেশ

বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য কয়লা পোড়ানো প্রথমবারের মতো পুরো একদিন বন্ধ রাখলো যুক্তরাজ্য। শিল্প বিপ্লব শুরুর ১৩৫ বছর পর কয়লা ছাড়াই অন্যান্য উৎস থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করেছে দেশটি।

দেশটির বিদ্যুৎ সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ন্যাশনাল গ্রিড এ তথ্য জানিয়ে বলেছে, কয়লা ব্যবহার না করে ব্রিটেনে বিদ্যুৎ উৎপাদনের এক ‘সন্ধিক্ষণ’ ছিলো শুক্রবারের দিনটি। অর্থাৎ ২৪ ঘণ্টা জাতীয় গ্রিডে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়নি।

এর আগে গত মে মাসে প্রায় ১৯ ঘন্টা কয়লা বিদ্যুৎ উৎপাদন থেকে বিরত ছিল দেশটি। একইভাবে গত বৃহস্পতিবারও ১৯ ঘণ্টা কয়ালামুক্ত ছিল ব্রিটেনের বিদ্যুৎ সরবরাহ। আর এর পরদিন শুক্রবার ২৪ ঘণ্টা কয়লামুক্ত বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করতে সক্ষম হয় দেশটির ন্যাশনাল গ্রিড।

কার্বন নিঃসরণ কমাতে ২০২৫ সালের মধ্যে সব কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধ করার পরিকল্পনা করেছে ব্রিটিশ সরকার। অন্যান্য উৎস থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

১৮৮২ সালে লন্ডনের হোলবর্ন ভায়াডাক্ট এলাকায় কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু হয়। এরপর থেকে এই প্রথমবারের মতো  বিদ্যুৎ উৎপাদনে কয়লার ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকলো দেশটি।

দেশটির ন্যাশনাল গ্রিডের কর্মকর্তা কোর্ডি ও’ হারা বলেন, “শিল্প বিপ্লব শুরুর পর প্রথমবারের মতো কয়লামুক্ত বিদ্যুৎ উৎপাদন বন্ধ থাকাটা ছিল এক সন্ধিক্ষণ। এভাবেই আমাদের বিদ্যুৎ খাত পরিবর্তিত হচ্ছে।”

গ্রিড ওয়াচের তথ্য অনুযায়ী, শুক্রবার ন্যাশনাল গ্রিডের অর্ধেক বিদ্যুৎ এসেছিলো গ্যাসভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে, এক-চতুর্থাংশ আসে পারমাণবিক কেন্দ্র থেকে। আর বাকিটা এসেছে জৈব, পানি, বায়ু ও সৌরবিদ্যুৎ থেকে।

 

 

সম্পাদক: আমিনূর রহমান
@ সর্বস্বত্ব এনার্জিনিউজবিডি ডটকম ২০১৫-২০২০